আলোচিত সংবাদ

ভোটে নামছেন তৈমুর, ঘাম ঝরবে আইভীর

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোট অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৬ জানুয়ারি। মনোনয়নপত্র দাখিল ১৫ ডিসেম্বর। যাচাই-বাচাই ২০ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৭ ডিসেম্বর।

দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এই সিটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়েছেন বর্তমান মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী। অন্যদিকে বিএনপি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ নির্বাচনে অংশ নেবেন না। তবে দলের কেউ সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করলে তাতে বাধা দেবে না বিএনপি।এক্ষেত্রে শোনা যাচ্ছে আইভীর বিপক্ষে সতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ভোটের ময়দানে নামতে যাচ্ছেন বিএনপির হেভিওয়েট নেতা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার।

শনিবার (১১ ডিসেম্বর) সাংবাদিকদের তিনি এতথ্য নিশ্চিত করেছেন। এদিকে মেয়র পদে তৈমুর আলম খন্দকার ভোটযুদ্ধে নামলে একটি চরম প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন হবে বলে মনে করছেন রাজনীতি বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, এই হেভিওয়েট প্রার্থী মাঠে নামলে ঘাম ঝরাতে হবে সরকারদলীয় প্রার্থীর।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জের বিএনপির তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রবল ইচ্ছা ও মনোবল চাঙা রাখতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তৈমুর। তাছাড়া বিএনপিপন্থী অনেক কাউন্সিলর প্রার্থীও আছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে। দেশের বর্তমান রাজনৈতিক ও চলমান নির্বাচনী পরিবেশ-প্রতিবেশে নাসিকে মেয়র পদে তৈমুর আলম খন্দকার লড়াইয়ে নামলে শুধু বিএনপিই নয়, গণজোয়ার সৃষ্টি হবে বলে মনে করছে স্থানীয়রা বিএনপি নেতারা।

এবিষয়ে অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার বলেন, আমি দলীয় সিদ্ধান্তে অনড় ছিলাম। কিন্তু তফসিল ঘোষণার পর থেকেই দলের ত্যাগী নেতাকর্মী ও সমর্থকরা যেভাবে আমাকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন- আমি মনে করি তৃণমূলের নেতাকর্মীদের এ স্পৃহা ও চাঙা ভাবটা ধরে রাখাও আমার নৈতিক দায়িত্ব। তাছাড়া নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে মানুষ পরিবর্তন চাচ্ছেন; ১৮ বছরের একনায়কতন্ত্রের অবসান চাচ্ছেন। দলের বাইরেও শত শত মানুষ আমাকে নির্বাচন করতে বলছেন। খালি মাঠে গোল দেওয়ার সুযোগ আমরা দিতে চাই না।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!