আলোচিত সংবাদ

‘আমি শতশত লাশের উপর দিয়ে যেয়ে মনোনয়ন প্রত্যাহার করতে পারেনি’

ভালবাসার বিরল দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করেছেন মেঘনা বাসি তাদের পছন্দের প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ওই প্রার্থীর বাড়ীর গেটে তালা লাগিয়ে দিন অবস্থান করেছেন শতশত নারী পুরুষ। বুক ভাটা আর্তনাদ ছিল চোখে পড়ার মতন।

এ ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মাছপাড়া ইউনিয়নের ০১ নং ওয়ার্ড মেঘনা গ্রামে। এ যেন ভালবাসার এক উজ্জল দৃষ্ঠান্ত। আগামী ৫ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হবে পাংশা উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আজ ১৯ ডিসেম্বর ছিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন।

সকালে ওই প্রার্থী মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করবেন বলে বাড়ী থেকে বের হওয়ার চেষ্ঠায় প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন এমন সংবাদ এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় হাজারো জনতা তার বাড়ীর সামনে উপস্থিত হয়ে তার বাড়ীর সামনের গেটে তালা লাগিয়ে দেন এবং তারা বিকাল ৫ টার আগে তাকে বাড়ী থেকে বের হতে দেয়নি। এমনত অবস্থায় তিনি মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করতে পারেননি।

ওই এলাকায় সরেজনিনে গিয়ে একাধীক ব্যাক্তির সাথে কথা হলে তারা জানান- আমরা তাকে মেম্বার পদে দেখতে চাই। তিনি সব সময়ই আমাদের পাশে থেকে সহযোগিতা করেন। আমরা তাকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে যেতে দেব না। যেতে চাইলে আমাদের লাশের উপর দিয়ে যেতে হবে। আমরা তাকে ঘরে তালা দিয়ে রেখেছি।

আগামী ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের লক্ষে মনোনয়ন পত্র দাখিল করে নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে অংশ গ্রহণ করেছেন খামারপাড়া গ্রামের মৃত নজরুল ইসলাম মৃধার ছেলে মাছপাড়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম পিন্টু।

ইউপি সদস্য প্রার্থী মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম পিন্টুর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, পরিস্থিতি আপনারা দেখেছেন আমাকে ঘরে কি ভাবে আটকে রেখেছিল আমার সমর্থিত এলাকাবাসী। অনেক চিন্তা ভাবনা করে মনোনয়নপত্র প্রত্যারের সিদ্ধান্ত নিয়ে ছিলাম সকালে বাড়ী থেকে মনোনয়পত্র প্রত্যাহারের উদ্দেশ্যে বের হওয়ার সময় আমার সমর্থিত এলাকাবাসীরা এসে আমাকে ঘরে তালা বন্ধ করে রাখেন।

অনেক বলার পর শেষ বিকালে তালা খুলে আমাকে বের করেন তারা । তারা বলছেন মনোনয়পত্র প্রত্যাহার করতে গেলে আমাদের লাশের উপর দিয়ে যেতে হবে। এমতাবস্থায় আমি আমার ভালবাসার মানুষদের লাশের উপর দিয়ে যেয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে পারি না। আমি আর মেম্বার হতে চাই না, আমার এলাকার মানুষ আমাকে যে ভালবাসে তার প্রমান আজ তারা দিয়েছেন সকাল থেকে না খেয়ে মানুষ আমার বাড়ীর সামনে দাড়িয়ে ছিল। এ ভালবাসার প্রতিদান কি ভাবে আমি দিব আমার জানা নেই। মাছপাড়া ইউনিয়নে ৬ ইউপি সদস্য ও ৩ জন সংরক্ষিত আসনের প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন ফলে ওই ইউনিয়নের ৯ জন জনপ্রতিনিধি পূনরায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বী নির্বাচিত হয়েছেন।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!