আলোচিত সংবাদ

ওমিক্রনের আশ্চর্য যে লক্ষণ দেখা দিচ্ছে শুধু রাতে

ওমিক্রন নিয়ে সারা বিশ্বে তৈরি হয়েছে ভীতিকর পরিস্থিতি। শনাক্ত না হলেও বিশ্বের প্রায় সব দেশেই ওমিক্রন রোগী আছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। ওমিক্রনের কিছু লক্ষণের কথা এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানালেও এবার অদ্ভুত এক লক্ষণের কথা জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের একজন চিকিৎসক।

শুধু তা-ই নয়, ওই লক্ষণ শুধু রাতেই দেখা যায় বলে জানিয়েছেন ওই চিকিৎসক।ব্রিটেনের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসে কর্মরত ডা. আমির খানের দাবি, ওমিক্রনে আক্রান্ত অনেক মানুষের রাতে প্রচুর ঘাম হতে দেখা গেছে, যা করোনার নতুন লক্ষণ হিসেবে বিবেচনা করছেন তিনি। করোনার কোনো ভেরিয়েন্টে এখন পর্যন্ত এই লক্ষণ প্রকাশ পায়নি।

টিভি প্রগ্রামে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওমিক্রনের নতুন উপসর্গের বিষয়ে তুলে ধরেন ওই চিকিৎসক। তিনি বলেন, তাঁর সহকর্মীরা এই নতুন লক্ষণ ওমিক্রনে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে পর্যবেক্ষণ করেছেন। পাঁচজনের একজনের এই উপসর্গ শুধু রাতেই প্রকাশ পায়। তবে এই রাতে ঘাম হওয়ার পরিমাণ এত বেশি যে, জামাকাপড়ও পরিবর্তন করতে হয়। ডা. খানের দেওয়া তথ্য মতে, ওমিক্রনের বর্তমান কিছু লক্ষণ হলো গলা ব্যথা, পেশিতে হালকা ব্যথা, অবসাদ, শুকনা কাশি, রাতে প্রচুর ঘাম হওয়া।

রাতে তীব্র ঘাম :
করোনা রোগীদের রাতে ঘাম হওয়ার বিষয়টি এবারই প্রথম নয়। গত ডিসেম্বরে ২১২ জন করোনা রোগীর ওপর গবেষণা করা হয়, তাতে দেখা যায় ১১৪ জনের প্রচুর ঘাম হয় এবং তাদের মধ্যে ১০২ জনের রাতে প্রচুর ঘাম হয়।

গত মাসে ওমিক্রন প্রথম শনাক্ত হওয়ার আগেই এই গবেষণা চালানো হয়। এর আগে গত বছর চীনের পিপলস হসপিটাল বাই অফ গুইঝোতে চালানো গবেষণায় বলা হয়, রাতের ঘাম করোনা নিউমোনিয়ার প্রথম লক্ষণ হতে পারে। যদিও সে সময় এর বিজ্ঞানসম্মত কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবু অনেক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের মতে, রাতে ঘাম হওয়া করোনার অন্যতম লক্ষণ।

ওমিক্রনের উপসর্গ দেখা দিলেই টেস্ট :

করোনার এই লক্ষণকে গুরুত্ব দিয়ে ডা. আমির খান বলেছেন, ওমিক্রনের যেকোনো লক্ষণ দেখা দিলেই দ্রুত পিসিআর টেস্ট করাতে হবে। এতে নতুন করে করোনা ছড়ানোর আশঙ্কা অনেকটা হ্রাস পাবে।ডেল্টার সাথে তুলনা করলে করোনার বেশির ভাগ লক্ষণই মৃদু। দক্ষিণ আফ্রিকার চিকিৎসক অ্যাঞ্জেলিক কোয়েটজি বলেন, বেশির ভাগ ওমিক্রন রোগীর লক্ষণ খুব হালকা। সেই সাথে বেশির ভাগ আক্রান্ত মানুষ ভ্যাকসিন নেয়নি।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!