আলোচিত সংবাদ

ছোট্ট সন্তানদের বাঁচাতে বিষধর সাপের সাথে প্রানপন লড়াই করল মা মুরগি, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

সারাদিনের বেশ খানিকটা সময় আমরা সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যয় করে থাকি এই সমস্ত ভাইরাল ভিডিওগুলি দেখে। করোনা মহামারীর সময় যখন সারা দেশজুড়ে লকডাউন চলছিল সেই সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ার চাহিদা এবং গুরুত্ব দুটোই বেড়ে যায়। গৃহবন্দী মানুষ তখন নিজেকে ব্যস্ত রাখতে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন কার্যকলাপ করে পোস্ট করতে শুরু করে।

নিমেষের মধ্যে সেই সকল পোস্ট ভাইরাল হয়। আর এরই মধ্যে ভাইরাল হয়েছে একটি সাপ ধরার ভিডিও।ভারতীয় কেউটে,‌ এছাড়াও হিসাবে পরিচিত চশমা-পরিহিত কেউটে , এশিয়ান কেউটে , নামে পরিচিত। এই সাপ ভারত , পাকিস্তান , বাংলাদেশ , শ্রীলঙ্কা , নেপাল ও ভুটানে এই প্রজাতি সাপের যে অধিকাংশ হানা ভারতে মানুষের উপর।

এটি কিং কোবরা থেকে আলাদা যা একঘেয়ে বংশের অন্তর্গতওফিওফ্যাগাস। ভারতীয় কোবরা ভারতীয় পৌরাণিক কাহিনী এবং সংস্কৃতিতে সম্মানিত , এবং প্রায়শই সাপের মন্ত্রমুগ্ধদের সাথে দেখা যায় । এটি এখন ভারতীয় বন্যপ্রাণী সুরক্ষা আইন (১৯৭২) এর অধীনে ভারতে সুরক্ষিত। সাপের মত নিরীহ প্রাণী আর হয় না।

শুধুমাত্র আত্মরক্ষা ও শিকারের জন্য সাপ অন্য পশু-পাখিদের উপর আক্রমণ করে। পিটিয়ে মেরে ফেলেন অথবা গুরুতরভাবে আঘাত করে দেন। এই ক্ষেত্রেই বিশেষ কিছু মানুষ যারা সর্প বিশেষজ্ঞ তারা সেইসব সাপকে উদ্ধার করে রক্ষা করেন, তাদের বলা হয় সর্প রক্ষক। এ রকমই একজন সর্প রক্ষক হলেন মির্জা আরিফ।

তাকে আমরা প্রায়ই তার অফিসিয়াল ইউটিউব ভিডিও চ্যানেল থেকে দেখে থাকি। সেখানে তিনি তার সাপ ধরার বিভিন্ন ভিডিওগুলি পোস্ট করেন। মিস্টার মির্জা আরিফের ভিডিও গুলো দেখলে সত্যিই অবাক হতে হয়। তার দুঃসাহসিক ভিডিওগুলি বারবার আমাদের মুগ্ধ করে। সাম্প্রতিক কিছুদিন আগেই তার ভাইরাল একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছিল,

তিনি তার সংরক্ষিত সমস্ত সাপগুলোকে নিরাপদ স্থানে মুক্ত করে দিচ্ছেন। সমস্ত সবগুলি অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গেই স্বাধীনতা পেয়ে ধীরে ধীরে চলে গেল নিজের জায়গায়। বিশেষ করে মানুষ বিষধর নাভি সহিন সেগুলি বুঝে উঠার আগেই সাপকে মেরে ফেলে, সেদিকে মির্জা আরিফ সেই সমস্ত সাপগুলোকে রক্ষা করে মানবিকতার পরিচয় দিয়ে দেন সব সময়।

সাধারণ মানুষের কাছে তাদের বাড়ির এক অত্যন্ত নিরাপদ স্থান। কিন্তু সেখানেই ঘরে ভেতর যদি নির্জন রাতে দেখেন, তাও আবার যদি কলা বাগানের ভেতর ঢুকে আছে এক বিশাল বড় কোবরা সাপ? সম্প্রতি ভাইরাল একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, আরিফ উড়িষ্যার অঞ্চলের একটি গ্রামে গিয়ে দেখছেন,

আর সেখানকার এক পুরনো বাড়ির কলাবাগানের গায়ের পাঁচিলে ভিতরে রয়েছে এক বিশাল বড় কোবরা সাপ। সাপটি পাঁচিলের মাঝখানে আটকে নিচের দিকে গিয়ে এদিক-ওদিক করছিল।তিনি অর্থাৎ আরিফ সাপটিকে ধরতে যেতেই সে বারবার তাকে ছোবল মারতে থাকে, কিন্তু প্রতিবারই আরিফ একটুর জন্য রক্ষা পেয়ে যান।সাপটি বিশাল বড় ফণা তুলে মুখে গর্জন করতে থাকে, সাপটিকে কিছুতেই ধরা যাচ্ছিলোনা, শেষ পর্যন্ত আরিফ অনেক কষ্টের সাপটিকে ধরতে সক্ষম হন। তিনি সাপটিকে ঘরের বাইরে নিয়ে আসেন এবং সেই সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করেন।

তিনি বলেন, যেহেতু এটি ওদের খিদের চাহিদায় মাটি গর্ত এবং ঘরের ভিতরে ঢুকে যায়। এখানে দেখাও গিয়েছিল যে সাপটি কতগুলি মোরগ কে মেরে ফেলেছে। কিন্তু এদের যেন কোনোভাবেই মারা না হয়, সেদিকে লক্ষ্য রাখা দরকার। মির্জা আরিফ এসব তথ্যগুলি দর্শককে সমৃদ্ধ করেছে। আর তার কথাগুলি দর্শকরা খুবই ধৈর্য সহকারে শুনেছে।ইউটিউব এ ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে আরিফের এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে । যার নাম MIRZA MD ARFI। ১৪১ হাজারের বেশি জন মানুষ দেখেছেন। ২ হাজারেরও বেশি মানুষ ভিডিওটি লাইক করেছেন। আপনারা গিয়ে এই ভিডিওটি দেখতে পারেন আশা করি ভালো লাগবে।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!