আলোচিত সংবাদ

নিজের নাম নিচে থাকায় ব্যানার ছিঁড়লেন ভাইস চেয়ারম্যান

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সেনবাগে ৪৩তম জাতীয় বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে টানানো ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে সেনবাগ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. গোলাম কবিরের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) বেলা ১১টার দিকে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ ঘটনা ঘটে।স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয়ের আয়োজনে দুই দিনব্যাপী ৪৩তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান মেলার আয়োজন করা হয়। মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম মজুমদার প্রধান অতিথি ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি করা হয় সেনবাগ পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আবু নাছের, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. গোলাম কবির ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়াম সুলতানা। বেলা ১১টার দিকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সেনবাগ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম কবির অংশ নেন।

অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করেই তিনি ব্যানারে অতিথিদের নামের তালিকা নিয়ে অভিযোগ করেন। ব্যানারে তার নামের আগে মেয়রের নাম কেন হয়েছে, এটা নিয়ে তিনি হট্টগোল শুরু করেন। এক পর্যায়ে তিনি অনুষ্ঠানের সভাপতি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দিনকে ব্যানার নামিয়ে ফেলতে বলেন। এরপর গোলাম কবির নিজেই মঞ্চে উঠে ব্যানারটি টেনে ছিঁড়ে ফেলেন। এ ঘটনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ ছিল। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইফুল ইসলাম মজুমদার জানান, মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরুর কিছুক্ষণ পর ভাইস চেয়ারম্যান অনুষ্ঠানস্থলে আসেন। এ সময় ব্যানারে তার নাম মেয়রের নামের পরে থাকায় তিনি মঞ্চে উঠে ব্যানার টেনে ছিঁড়ে ফেলেন এবং পদদলিত করেন। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

সেনবাগ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম কবির বলেন, অনিয়মের কারণে ব্যানার খুলে প্রোগ্রাম করতে বলেছি। উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে প্যানেল চেয়ারম্যান হিসেবে আমার নাম আসার কথা। তাছাড়া দুই ভাইস চেয়ারম্যানের পরে হবে মেয়রের নাম। নামগুলো উল্টাপাল্টা হওয়ার কারণে আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। এজন্য আমি বলেছি ব্যানার খুলে ফেলার জন্য। এটা “খ” শ্রেণির পৌরসভা। আর প্রোগ্রামটি ছিল উপজেলা প্রশাসনের, এটা পৌরসভার প্রোগ্রাম নয়।’

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান বলেন, ভাইস চেয়ারম্যান মনে করেন তিনি মেয়রের ওপরে। কিন্তু সরকারি প্রটোকল অনুসারে ভাইস চেয়ারম্যানের ওপরে পৌরসভার মেয়রের অবস্থান। ভাইস চেয়ারম্যান তা না মেনে সরকারি অনুষ্ঠানে গিয়ে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন। তার বিরুদ্ধে যেন আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়, সে বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠানো হবে।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!