আলোচিত সংবাদ

নির্বাচনে হেরেও ৩ হাজার মানুষকে খাওয়ালেন মেম্বার প্রার্থী

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে নির্বাচনে হেরেও তিন হাজার মানুষকে এক বেলা খাওয়ালেন এক মেম্বার প্রার্থী। এতে মুগ্ধ হয়েছেন এলাকাবাসীও।বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার জামতৈল ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের পরাজিত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ এমন আয়োজন করেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, চতুর্থ ধাপে ২৬ ডিসেম্বর কামারখন্দ উপজেলার চারটি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে জামতৈল ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড কর্ণসূতি গ্রামের প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ মাত্র তিন ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আবুল কালাম আজাদ মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) কামারখন্দ হাট থেকে ৫৫ হাজার টাকা দিয়ে একটি ষাঁড় গরু কিনেন। পরে গ্রামের বাসিন্দাদের সহযোগিতায় গরু জবাই করে স্থানীয় পদ্ধতিতে ১০টি চুলায় বিরিয়ানি তৈরি করেন।

কর্ণসূতি গ্রামের বাসিন্দা নুরুল ইসলাম বলেন, আমাদের ধারণা ভোটে আবুল কালাম আজাদই বিজয়ী হয়েছে। তাই আমরা আনন্দ উৎসব হিসেবে একবেলা খাওয়ার অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছি।

একই গ্রামের আব্দুস সালাম বলেন, আমাদের কাছে মনে হয়েছে আবুল কালাম আজাদকে অবৈধভাবে হারানো হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে তিনি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। তাই আমরা সবাই মিলে আবুল কালাম আজাদের সঙ্গে এক হয়ে এ আয়োজন করেছি। গ্রামের প্রায় মানুষ খাবারে অংশ নেওয়ায় উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এসএম আব্দুর রহিম জাগো নিউজকে বলেন, ইউপি সদস্য প্রার্থী আবুল কালাম আজাদকে অবৈধভাবে পরাজিত করার বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই। এছাড়া এ ব্যাপারে আমার কাছে কেউ কোনো অভিযোগও করেননি।

আবুল কালাম আজাদ জাগো নিউজকে বলেন, জনগণের বিপুল ভোটে আমি বিজয়ী হয়েছি। কিন্তু কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা আরেক প্রার্থীকে অবৈধভাবে বিজয়ী ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা মনে করেন ঘোষণা যাই হোক না কেন, তারা আমাকে ভোট দিয়েছেন, আমিই বিজয়ী। যার কারণে সবাইকে নিয়ে একবেলা খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রায় তিন হাজার মানুষ দুপুরের খাবারে অংশ নেন।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!