আলোচিত সংবাদ

‘মাইয়াডার লাশটা পাইলেও কবরডা দেখতাম’

‘একমাত্র মাইয়াডারে হারাইলাম। এহন ক্যামনে থাকমু। মাইয়াডার লাশটা পাইলেও কবরডা দেখতাম।’ এভাবে কথা বলছিলেন ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের আট দিন পরও নিখোঁজ থাকা পপির বাবা আফজাল হোসেন।

নিখোঁজ ফজিলা আক্তার পপির বাড়ি বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার চরদুয়ানী ইউনিয়নের ছোট টেংরা গ্রামে। দুর্ঘটনার পর এমভি অভিযান-১০ লঞ্চসহ ঝালকাঠি ও বরগুনা সদর হাসপাতালের মর্গে এবং বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে খোঁজ নিয়েও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

পপি ঢাকার সাভারে একটি গার্মেন্টস কারখানায় চাকরি করতেন। তার মেয়ে লামিয়া (১৩) নানা-নানির সঙ্গে পাথরঘাটায় থাকে। মেয়েকে নিতে গত ২৩ ডিসেম্বর ঢাকা থেকে পাথরঘাটায় অভিযান-১০ লঞ্চে রওনা হন। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ রয়েছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হুসাইন মোহাম্মদ আল মুজাহিদ জানান, বর্তমানে উদ্ধার অভিযান বন্ধ রয়েছে। সুগন্ধা নদীতে লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এ পর্যন্ত পাথরঘাটায় চার জনের মরদেহ দাফন করা হয়েছে। পপিসহ এখনো নিখোঁজ রয়েছে অনেক। পুড়ে যাওয়া লাশের ডিএনএ টেস্টের রেজাল্ট পাওয়ার পর পপির বিষয়টি জানা যাবে।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!