আলোচিত সংবাদ

সন্তান জন্মের ২৪ ঘণ্টা না যেতেই প্রেমিকের হাত ধরে পালালেন মা

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বেসরকারি হাসপাতালে সন্তান জন্মের ২৪ ঘণ্টা না যেতেই প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছেন ইমু নামে এক গৃহবধূ। মা পালিয়ে গেলেও নবজাতকটি রয়েছে হাসপাতালে।

বৃহস্পতিবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. রোমান। এর আগে, বুধবার সন্ধ্যায় রায়পুর জনসেবা হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় রায়পুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন নবজাতকের বাবা মো. সুমন। অভিযুক্ত ইমু উপজেলার চরপাতা গ্রামের আব্দুর রশিদ মাস্টারবাড়ির শামসুল হকের মেয়ে।

অভিযুক্তের স্বামী সুমন বলেন, প্রায় দুই বছর আগে ইমুকে বিয়ে করি। দেড় বছর ধরে ঢাকায় বাস চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছি। তবে বিয়ের পর থেকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে প্রায়ই আমার সঙ্গে ঝগড়া করতেন ইমু। অনেকের সঙ্গে পরকীয়াও করতেন। এ নিয়ে একাধিকবার সালিশও হয়েছে। তবু তাকে ফেরাতে পারিনি।

সুমন বলেন, আমার বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা অভিযোগ করে নানাভাবে হয়রানি করেন ইমু। তবে সন্তানের কথা ভেবে ঢাকায় ভাড়া বাসায় থাকি। কয়েকদিন আগে তাকে নিয়ে বাড়িতে আসি। সোমবার সকালে প্রসব বেদনা নিয়ে রায়পুর জনসেবা হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ছেলেসন্তান জন্ম দেন। বুধবার সন্ধ্যার আগে প্রেমিক মো. হাসানের হাত ধরে পালিয়ে যান স্ত্রী। আমার সন্তান এখনো হাসপাতালে রয়েছে। তার মুখে খাবার স্যালাইন দিয়ে রাখা হয়েছে।

মুঠোফোনে ইমু বলেন, আমাকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন সুমন। বিয়ের পর থেকে স্বামী ও শাশুড়ি আমাকে শারীরিক নির্যাতন করেছেন। এ কারণে বাচ্চা হাসপাতালে রেখে অজ্ঞাতনামা স্থানে চলে এসেছি। তাদের ওপর প্রতিশোধ নিতেই এ কাজ করেছি। সুমনের সঙ্গে আমার এক বছর আগেই সম্পর্ক শেষ হয়ে গেল।

রায়পুর থানার ওসি শিপন বড়ুয়া বলেন, এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন সুমন। নবজাতকটি নানি, দাদি, ফুফু ও বাবার কাছে হাসপাতালে রয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!