বিনোদন

পরী জন্মদিন নিয়ে সমালোচনার ঝড়

আলোচিত-সমালোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি ২৪ অক্টোবর রবিবার হোটেল রেডিসন ব্লুতে ৩০তম বার্থডে পার্টির আয়োজন করেন। নিয়ন আলোয় ঝলমলে তিলোত্তমা ঢাকা। ঘড়ির টিকটিক শব্দে সময় গড়াচ্ছে।

এর মাঝেই পাঁচতারকা হোটেলে বসেছে জমকালো আয়োজন। লাল আর সাদা রঙকে প্রাধান্য দিয়ে হোটেলের সাজসজ্জা চোখ ধাঁধানো। জন্মদিনে আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য ড্রেস কোড ছিল ছেলেদের সাদা এবং মেয়েদের লাল রঙের পোশাক। সেই নিয়ম মেনেই সকলে উৎসবে হাজির হন। সবার চোখে-মুখে উচ্ছল হাসি আর আনন্দ। অতিথিদের সঙ্গে ম্যাচিং করে পরীমনি সেজেছিলেন সাদা ও লাল রঙের মিশ্রণে।

অনেকটা বিমানবালার সাজে ধরা দেন এই নায়িকা। গায়ে ছিল লাল রঙের শার্ট, যেটি পেট বরাবর বাধা। সঙ্গে পরেছিলেন সাদা ধুতির মতো এক ধরনের পোশাক, সেটি আবার লুঙ্গির মতো করে কাছা দেওয়া। অর্থাৎ, উরু থেকে পায়ের গোড়ালি পর্যন্ত পুরোই উদোম। গ্রামঞ্চলে এমন ভাবে লুঙ্গি বেধে কৃষকদের ক্ষেতে কাজ করতে দেখা যায়।

অন্যদিকে, নায়িকার মাথায় ছিল লাল-সাদা ওড়না প্যাঁচানো, সঙ্গে পালক। পায়ে লাল জুতা। হোটেল রেডিসন ব্লুতে পরীমনির জন্মদিনের এই জমকালো আয়োজন এবং সাজ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম খবর প্রকাশ করেছে এবং সেগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ারও হয়েছে। সেখানেই নায়িকার এমন সাজকে অশ্লীল বলে উল্লেখ করা হয়েছে। পোস্ট হওয়া খবরের কমেন্ট বক্স ভরে গেছে নানারকম নেতিবাচক মন্তব্য। নারী নেটিজেনরাই বেশি নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন পরীমনির সাজ নিয়ে। এমন সাজে উল্টাপাল্টা নেচেও সমালোচিত হয়েছেন নায়িকা।

মেহরুন রুমা নামে একজন লিখেছেন, ‘নূন্যতম লজ্জাবোধও যদি অবশিষ্ট থাকতো, তাহলে এ ধরনের প্রোগ্রাম আর করতো না। ওর মমকেও দেখলাম কেক খাওয়াতে। সবকিছু মিলিয়ে আমি নিজেই কেন জানি লজ্জা পাচ্ছি। কারণ, আমিও একজন নারী।’ আফসানা সোমা নামে এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘ড্রেসটা এতো বিশ্রী আর রুচিহীন! সাংবাদিক সোস্যাইটিগুলোতে যে বুভুক্ষা লোকজন কাজ করে এসব কাহিনিতেই বোঝা যায়। কোনো সুস্থ মগজের মানুষ এসব সাপোর্ট করবে না। আনন্দ করো। তাতে শিল্প চর্চা ও সৌন্দর্য রাখো।’ সোমা তার মন্তব্যের সঙ্গে দিয়েছেন রাগের ইমোজি। এএনএম শামসুল হুদা নামে এক ব্যক্তির মন্তব্য, ‘এটা জন্মদিন নয়।

এটা হলো নির্লজ্জ অপসংস্কৃতি। আমাদের চলচ্চিত্রে কবরী, ববিতার মতো হিরোইন পেয়েছি। যারা আমাদের চলচ্চিত্রকে সমৃদ্ধ করেছেন। ধিক এ আয়োজনকে। আবার মিডিয়া এটাকে ফলাও করে প্রচার করে। আমাদের টেলিভিশন মিডিয়াগুলো অপপ্রচারে বেশি বেশি প্রাধান্য দেয়।’ শামীমা আক্তার শোভা লিখেছেন, ‘ঠিকই ফুল অ্যানার্জি নিয়ে এখন লাফালাফি করছে। কিন্তু যেই কোর্টে হাজিরা দেওয়ার ডেট পড়বে, সেই অসুস্থ হয়ে পড়বে।’ এছাড়া অসংখ্য নেটিজেন অত্যন্ত কুরুচিপূর্ণ ভাষায় পরীমনির জন্মদিনের সাজ ও নাচের তীব্র সমালোচনা করেছেন। কেউ কেউ আবার তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজও করেছেন, যেগুলো প্রকাশযোগ্য নয়।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!